সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪ | ৩ আষাঢ় ১৪৩১
ad
ফেসবুক থেকে আয় করা সহজ উপায়
অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ১১:১১ এএম, ১৭ মে ২০২৩

ক্রিয়েটররা যাতে আকর্ষণীয় পাবলিক রিল তৈরি ও শেয়ার করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন তার জন্য গত বছর থেকে ফেসবুক রিলস-এ পরীক্ষামূলকভাবে বিজ্ঞাপন দেওয়া শুরু করেছে মেটা। এবার সেই আয়ের পথ আরও সহজ হলো।

সম্প্রসারণের কাজে গতি আনার জন্য যে ক্রিয়েটররা আগে ফেসবুকের রিলস প্লে বোনাস প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেছিলেন, তাদের মধ্যে থেকে অনেক ক্রিয়েটরসহ হাজার হাজার নতুন ক্রিয়েটরদের নিজেদের আপডেট করা পরীক্ষায় যোগ দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছে কোম্পানিটি। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি ইনস্টাগ্রামেও একই রকমের একটি প্রোগ্রাম পরীক্ষা করা শুরু করবে।

এছাড়াও প্রোগ্রামটির বিকাশের মাধ্যমে একটি নতুন পে-আউট মডেলের পরীক্ষা করা হচ্ছে। এই মডেলটি ক্রিয়েটরদের তাদের পাবলিক রিলে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য পেমেন্ট না করে রিলের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে পেমেন্ট করবে। এর মানে হলো যখন বিজ্ঞাপনদাতা ও দর্শকদের জন্য বিজ্ঞাপনের অভিজ্ঞতা অপ্টিমাইজ করা হবে, ক্রিয়েটররা তখন আকর্ষণীয় কন্টেন্ট তৈরিতে মনোযোগ দিতে পারবেন।

কীভাবে উপার্জন করবেন

প্রাথমিকভাবে রিল চালানোর সংখ্যার ভিত্তিতে পেআউট বা পেমেন্ট নির্ধারণ করা হবে। ক্রিয়েটরদের রিল যত ভালো পারফর্ম করবে, ক্রিয়েটররা তত বেশি আয় করতে পারবেন। সময়ের সাথে সাথে পেআউটে, গ্রাহকের অন্যান্য কার্যকলাপও অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে।

 

পরীক্ষামূলক এই ব্যবস্থার মাধ্যমে মেটা দেখতে পাচ্ছে যে, পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে পেআউট বা পেমেন্ট করা হলে তা প্রত্যেকের চাহিদার ভারসাম্য বজায় রাখার ক্ষেত্রে সবচেয়ে ভালো কাজ করে। ক্রিয়েটরের নিয়ন্ত্রণের বাইরে অনেক পরিবর্তন গতানুগতিকভাবে তার বিজ্ঞাপন বাবদ উপার্জনকে প্রভাবিত করে। যেমন- যে ব্যক্তি ক্রিয়েটরের কন্টেন্ট দেখছেন তাকে কতগুলো বিজ্ঞাপন ইতোমধ্যে দেখানো হয়েছে বা সেই দর্শককে দেখানোর জন্য কোনো প্রাসঙ্গিক বিজ্ঞাপন আছে কি না।

পারফরম্যান্স ভিত্তিক মডেলের মাধ্যমে ক্রিয়েটররা তাদের অডিয়েন্সের কাছে আকর্ষণীয় ও তাদের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে এমন কন্টেন্ট তৈরিতে মনোযোগ দিতে পারেন এবং বিজ্ঞাপনদাতারা আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাতে বিজ্ঞাপন সংক্রান্ত আরও ইনভেন্টরিতে অ্যাক্সেস পান অর্থাৎ আরও বেশি কন্টেন্টে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। এছাড়া, দর্শকরাও প্রাসঙ্গিক বিজ্ঞাপনসহ ধারাবাহিকভাবে আরও বেশি কন্টেন্ট দেখতে পান।

পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা সব ক্রিয়েটরকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নতুন পেআউট মডেলে যোগ করা হবে এবং যে ক্রিয়েটররা আগে ফেসবুক রিলস-এ বিজ্ঞাপন দেওয়া সংক্রান্ত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলেন, তাদের আগামী কিছু সপ্তাহের মধ্যে যোগ করা হবে। একইসাথে, নির্বাচিত কিছু বাজারে ক্রিয়েটর ও বিজ্ঞাপনদাতাদের ছোট গ্রুপের মধ্যে, একই রকমের পারফরম্যান্স ভিত্তিক পেআউট মডেল দিয়ে ইনস্টাগ্রামে বিজ্ঞাপন দেওয়া সংক্রান্ত পরীক্ষা শুরু করবে মেটা।

তাছাড়াও, ফেসবুকে ইন-স্ট্রিম বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে পারফরম্যান্স ভিত্তিক পেআউট মডেল পরীক্ষা শুরু করার পরিকল্পনাও আছে প্রতিষ্ঠানটির। যেহেতু ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম দুই জায়গাতেই রিলের সংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাই ক্রিয়েটররা সব ধরনের ভিডিও শেয়ার করতে মেটা-র প্ল্যাটফর্মে আসছেন এবং মেটাও সব ধরনের কন্টেন্ট তৈরি করার ক্ষেত্রে ক্রিয়েটরদের সহায়তা করতে ইচ্ছুক।

কীভাবে অংশগ্রহণ করবেন

ফেসবুকে আমন্ত্রণ পাওয়ার জন্য যোগ্য হতে, ক্রিয়েটরদের অবশ্যই ৫২টি দেশের একটিতে থাকতে হবে এবং বেশ কিছু ন্যূনতম শর্ত মানতে হবে। ফেসবুকের রিলস প্লে বোনাস প্রোগ্রামে আগে যে যোগ্য ক্রিয়েটররা অংশ নিয়েছিলেন, তারা ইতোমধ্যে আমন্ত্রণ না পেয়ে থাকলে আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আমন্ত্রণ পেতে পারেন।

পরীক্ষায় ক্রিয়েটরদের যোগ করা হলে, রিলস-এ বিজ্ঞাপন থেকে উপার্জন করার জন্য ক্রিয়েটরদের অবশ্যই অনবোর্ডিং প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ করতে হবে এবং এই প্রক্রিয়ার মধ্যে ব্যবহারের শর্তাবলী গ্রহণ করা ও পেমেন্টের বিশদ বিবরণ দেওয়া অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এরপর, উপার্জন করার জন্য তাদের আকর্ষণীয় রিল তৈরি করা চালিয়ে যেতে হবে।

কোনো ব্যবহারকারী ফেসবুকে এই প্রাথমিক প্রোগ্রামের অংশ কি না তা জানতে তাকে প্রফেশনাল ড্যাশবোর্ডের 'মনিটাইজেশন টুল' বিভাগটি দেখতে হবে। তিনি আমন্ত্রিত হয়ে থাকলে, "রিলস-এ বিজ্ঞাপন" দেখতে পাবেন এবং অনবোর্ডিং শুরু করতে "সেট আপ" বেছে নিতে পারবেন।

উপার্জন করার বিভিন্ন উপায়

রিলস-এ বিজ্ঞাপন দেওয়া সংক্রান্ত কাজের ক্ষেত্রে মেটা এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে আছে। ক্রিয়েটর, বিজ্ঞাপনদাতা ও বিস্তৃতভাবে নিজেদের অ্যাপের জন্য যাতে সবচেয়ে ভালো সমাধান পাওয়া যায়, সেই লক্ষ্যে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। পাশাপাশি, অনবরত এই পরীক্ষাগুলোর ফলাফলের বিষয়ে নজর রাখছে।

'ফেসবুক রিলস-এ বিজ্ঞাপন' ও 'ইনস্টাগ্রাম রিলস-এ বিজ্ঞাপন' হলো অনেকগুলো মনিটাইজেশন টুলের মধ্যে অন্যতম দু’টি টুল, যা সব ধরনের ও সব স্তরের ক্রিয়েটরদের ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে স্থিতিশীলভাবে উপার্জন করতে সাহায্য করে। এছাড়াও যোগ্য ক্রিয়েটররা সাবস্ক্রিপশন, স্টার ও গিফটিংয়ের মাধ্যমে ফ্যানদের সমর্থন থেকে, মেটা-র ক্রিয়েটর মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে ব্র্যান্ড পার্টনারশিপ থেকে এবং ইন-স্ট্রিম বিজ্ঞাপনের মেটার পারফরম্যান্স বোনাস প্রোগ্রামের মাধ্যমে ফেসবুক থেকে উপার্জন করতে পারেন। আরও জানতে, যোগ্যতা যাচাই করতে ও উপার্জন করা শুরু করতে ফেসবুক ফর ক্রিয়েটরস ও ইনস্টাগ্রাম ফর ক্রিয়েটরস দেখুন।


বিষয়: ফেসবুক